ইভ্যালি ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন এর সেরা পুরুষ্কার Apachi RTR 4V 160 CC বাইক পাওয়ার গল্প।

0
2367

দেশসেরা ইভ্যালি তাদের ১ বছর পূর্তি উপলক্ষে জমকালো আয়োজন সফলভাবে সম্পন্ন করেছে । তাদের এই অনুষ্ঠানে শতাধিক পুরুষ্কার এর আয়োজন করা হয়েছিল এর মধ্য সবচেয়ে বড় আকর্ষন ছিল টিভিএস এর বাইক। যিনি পেয়েছেন তার নাম মাসুদ রানা তার কথা তুলে ধরা হলো।

মাসুদ রানা জানান ইভ্যালির নাম এবং বড় বড় বিলবোর্ড দেখেছিলাম ১ বছর আগেই কিন্তু এত বড় বড় অফার দেয় জানা ছিল না জুলাই ২০১৯ এ একটি ফেসবুক গ্রুপ এ একজনের পোষ্ট দেখি ২০০% ভাউচার কিনতে চাই নিয়ে সবার কাছে মতামত চেয়েছিল। তিনি বলেছিল এর আগেও ২০০%, ৩০০% ভাউচার দিয়েছিল কিন্তু সেটা বিশ্বাস করে নি বলে নিতে চাই নি এবার নিব কিনা ভাবছি তাই আপনাদের মতামত চাই আমিও পোষ্টটি দেখে লিংক এ ক্লিক করে দেখতে পেলাম ইভ্যালি 19:19, ইচ্ছে পূরণের মহোৎসব অফার চলছে ভাউচার কেনা যাবে রবিবার, 7 জুলাই, 2019, রাত 10:30 মিনিট থেকে স্টক থাকা পর্যন্ত এবং সেটা ব্যাবহার করা যাবে 1 সেপ্টেম্বর, 2019 তারিখ থেকে পরবর্তি যেকোন সময়।

এটা দেখার পর ভবলাম এতদিন টাকা ফেলে রাখার কোন মানে হয় না তাই তখন গুরুত্ব দেইনি পরবর্তীতে বন্ধুদের সাথে গল্প করি এবং ৭ সেক্টম্বর ইভ্যালি গ্রুপ এ যুক্ত হয়ে দেখতে পারি ইভ্যালিতে যেকোন কেনাকাটায় নতুন করে পেমেন্ট করলেই পুরো ৫০% ক্যাশব্যাক।অফার চলবে ২ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। কিন্তু হঠাৎ করেই আরেকটি পোষ্ট দেখতে পারি ৫০% ক্যাশব্যাক অফারের আওতায় অর্ডার করার আজ শেষ দিন। এই অর্ডারের পেমেন্ট করা যাবে ৮ সেপ্টেম্বর, রবিবার পর্যন্ত! কিন্তু ওই মূহুর্তে ১দিনের ভেতর টাকা যোগাড় করে বাইক কেনা সম্ভব ছিল না তাই মন খুব খারপ ছিল এর পরেই ১০ টাকার পেনড্রাইভ এর অফার দেয় সেটাতে নিজে ট্রায় করি এবং আমার নিজের লাল পিপড়া নামের একটা গ্রুপ আছে সেখানে লাইভে কিভাবে অর্ডার করতে হবে এবং ইভ্যালির উপর পূর্ণ বিশ্বাস রাখতে বলি। বেশ কিছুদিন পর অনেকের কাছে কথা শুনতে হয়েছে কেন পাইনি কিন্তু আমার বিশ্বাস ছিল যে যারা অর্ডার করতে পেরেছে সবাই পাবে।

এর মধ্য গ্রান্ড ব্যান্ড ডে এর অফার দিবে শুনলাম গ্রুপ এ টিভিএস এ ১৫% এবং হিরোতে ২০% দিবে তার পরেই দেখি ২৫% ক্যাশব্যাক এর অফার দেয় TVS বাইক এর উপর এবং হিরোতে ৩০% ঐ সময় আমার খুব ভাল ইনকাম ছিল যার ফলে ১মাসের ইনকামের টাকা দিয়েই ২৫% এ Apachi RTR 4V DD কালো কালারের অর্ডার দিই ঢাকা ব্যাংকের মাধ্যমে ১৫৭৫২০ টাকা।

অর্ডার দেওয়ার ২দিন পর হঠাৎ ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল সাহেব লাইভে এসে সকল গ্রান্ড ব্যান্ড ডে এর অফারের প্রডাক্ট এ ১০% অতিরিক্ত ক্যাশব্যাক পাবে বলে শুনে খুশি হয়ে গেলাম এবং এর পর রবিবার ব্যাংক খোলার সাথে সাথে ঢাকা ব্যাংক মিরপুর ১০ ব্রাঞ্চ এ ৩০ হাজার টাকা জমা দিই OnePlus 7 12GB Ram এর ফোন কিন্তু আমার পছন্দ ছিল OnePlus 7 Pro তাই অর্ডার বাতিল করার জন্য একের পর এক মেইল ফোন দিয়েও কাজ হয় নি দির্ঘ ১মাস পর অর্ডার বাতিল হয় এবং টাকাটা ইভ্যালির ওয়ালেট এ ফেরত দেয় এর মধ্য আমার ব্যাবসা বন্ধ হয়ে য়ায় ফলে Flatvara.com সাইটের কাজের কার্যক্রম চালাতে না পারাই বাইকটি বিক্রি করে দিই ২৭ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে একজন লন্ডন প্রবাসী ভাই এর কাছে।

ফেসবুক এ স্ট্যাটাস দিই যে সপ্ন বিক্রি করে দিলাম Flatvara.com সাইট চালানোর জন্য ইনশাল্লাহ আবারো শিঘ্রই সপ্ন পূরণ হয়ে যাবে কিন্তু সেটা যে মাত্র ২ সপ্তাহের মাথায় এভাবে ইভ্যালির মাধ্যমে পূরণ হয়ে যাবে তা ভাবতেই পারিনি কখনো।

বাইক বিক্রির কিছু টাকা ইভ্যালির ভাউচার কিনেছিলাম কিন্তু ইভ্যালি ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন এ অংশগ্রহণ করার কোন ইচ্ছেই ছিল না ১১ ডিসেম্বর রাত ১২ টার মধ্য ১০০০ টাকা বিকাশ করে রেজিস্টেষন করি নি হঠাৎ ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল এর একটি স্ট্যাটাস দেখতে পাই যে গিফ্ট কার্ড হোল্ডারদের জন্য স্পেশাল লটারী এর আয়োজন করা হচ্ছে। অলরেডি ১২ তারিখ হয়ে গেছে তবুও কাষ্টমার কেয়ার এ ফোন দিই যে কোনভাবে এখন রেজিষ্টেষন করা যাবে কিনা কাষ্টমার কেয়ার থেকে সরাসরি জানিয়ে দেয় আর সুযোগ নেই টাইম শেষ হয়ে গেছে মনটা ভেঙ্গে যায় এবং ফোন রেখে দিয়ে Evaly Offer, Help & Review গ্রুপ এ পোষ্ট দিই ১৬ ডিসেম্বর ইভ্যালির ফার্ষ্ট অ্যানিভার্সারি সেলিব্রেশনে অংশগ্রহণ করার জন্য পেমেন্ট করার সুযোগ দিন পোষ্ট দেওয়ার ১ ঘন্টার ভেতর গিফ্ট কার্ড হোল্ডারদের পেমেন্ট করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে জানতে পারি আমার এক বন্ধুর মাধ্যমে তিনি আমাকে জানান গ্রুপ এ পোষ্ট দেখলাম যারা গিফ্ট কার্ড কিনেছে কিন্তু পেমেন্ট করে রেজিষ্টেষন করে নি তাদের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সাথে সাথে তার মোবাইল কেটে বাসায় ফিরেই এপ্স থেকে বিকাশ নম্বর নিয়ে পেমেন্ট করে রেজিষ্টেষন করে ফেলি।

আমার বন্ধুদের সাথে সারাদিন ফোন এ ইভ্যালির বিভিন্ন অফার বিষয়ে আলোচনা করি তা দেখে আমার স্ত্রী রিরক্ত হয়ে বলে আমাকে বিয়ে করে ইভ্যালিকে বিয়ে করতে কি হয়েছিল? পরবর্তীতে ইভ্যালির স্টেজ এর এই ছবিটি ফেসবুক গ্রুপ এ দেখে আমার স্ত্রী জানান আমিও অংশগ্রহণ করতে চাই কিন্তু কাছে ছিল মাত্র ৫০০ টাকা বন্ধুর কাছ থেকে ৫০০ টাকা বিকাশে নিই এবং পেমেন্ট করে দিই।

মাসুদ জানান আমি ভেন্যু বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টার দেখি কিন্তু মাথায় থাকে বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স এর তাই বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স এর উদ্দেশ্য রওনা হই মিরপুর-১ থেকে এবং আমি যখন প্রায় বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স কাওরানবাজার এর কাছে তখন প্রায় ৫টা বাজে ঐ সময় ইন্টারনেট এ সার্চ দিয়ে দেখতে পাই বিশ্বরোড হয়ে যেতে হবে বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টার এ তখন আমার স্ত্রী রাগান্নিত হয়ে বলে পথে যখন বাধা এসেছে যাওয়ার দরকার নাই কিন্তু আমি বলি ২০০০ টাকা দিয়েছি না গেলে কেমন হয় দরকার হলে ৮ টায় পৈছাবো তবুও যাব। সাথে সাথে ১টি সিএনজি নিয়ে রউনা হই মাত্র মাত্র ২০ মিনিটে ৫টা ২৫ এর দিকে আমরা পৈছে যায়।

গান-বাজনা শেষ করার পর শুরু হলো লটারি এর পর্ব আমি বসে আছি এবং মনে মনে ভাবছি কিছু একটা বাদলেই খুশি এর মধ্য আমার আশে পাশে থেকে লটারি পেয়ে যাচ্ছে এদিকে আমার স্ত্রী বসে বসে ২রাকাত নফল নামাজ পড়েছে এবং দোয়া করছে যে সবাই সব পেয়ে যাক লাষ্ট এর বাইক টা যেন আমাদের পড়ে কিন্তু বাইক এর সময় যত কাহিনী শুরু হয় বার বার মোবাইল নম্বর ছাড়াই লটারি পড়ে এরপর ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল বলেন লটারিতে চান নাকি এপ্স এ চান বেশি সংখ্যক লটারিতে চাওয়াই সিদ্ধান্ত হয় যে লটারিতেই হবে এবং ড্র করার সাথে সাথে দেখি আমার নম্বর কিন্তু নম্বর দেখে বিশ্বাস করতে পারছি না সত্যি কি আমার নম্বর ভালভাবে কয়েকরার মিলিয়ে দেখি হ্যা আসলেই আমার নম্বর এর পর এতটাই উত্তেজিত হয়ে যায় যে স্টেজ এ কথা বলতে বলে শেষ এ যে কি বল শেষ করবো সেটােই বলতে পারছিলাম না। অনেক কথাই বলার ছিল কিন্তু সেখানে বলতে পারি নাই পরে অনেক আফসোস করেছিলাম কি করলাম এতবড় একটা সুযোগ পেয়েও কেন কাজে লাগাতে পালাম না আজ যদি আমার প্রথম বাইকটি বিক্রি করার কারণ বলতে পারতাম তাহলে লাখ লাখ মানুষের কাছে পৈছে যেত আমার কথাটি। একটা সপ্ন বিক্রি করে ১টা সপ্ন পূরণ করতে চেয়েছিলাম কিন্তু সেই সুযোগ একসাথে পূরণ হয়ে যেতো যদি আমি বলতে পারতাম ।

এমনিতেই প্রতিদিন ভাবি যে রাসেল ভাই এর সাথে যদি কেনভাবে সুযোগ হয় দেখা করার এবং আমি যদি আমার flatvara.com সাইটের কথা বলতে পারি যেটার কারণে আমার বাইক বিক্রি করতে হয়েছে । ভাই আমার সাধ্য নাই আপনার মত কোটি কোটি টাকা খরচ করে একটি সাইট দাড় করানোর কিন্তু আমার সুন্দর একটি সাইট

যেখানে প্লট,জমি,ফ্লাট,এপার্টমেন্ট,রুম,সাবলেট,হোটেল এবং অফিসসহ যে কোন ভাড়া বা বিক্রির বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন মাত্র ২ মিনিটে এই রকম ১টা পোষ্ট দিয়ে দিতেন আপনার ওয়ালেট এ তাহলে হয়তো আমার আর পিছনে ফেরে তাকাতে হতো না কিন্তু সেই সুযোগ তৈরি হয়েও কাজে লাগাতে পারলাম না পুরুষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এ। জানিনা আর কখনো এইরকম সুযোগ হবে কিনাা

ধন্যবাদ ইভ্যালিকে

ইভ্যালির প্রতি এই ভালবাসা রয়ে যাবে আজীবন….

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে